১লা ডিসেম্বর, ২০২১ ইং | ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

মোহাম্মদ মহিউস সুন্নাহ

প্রকাশিত হয়েছে: এপ্রিল - ২৩ - ২০১৭ | ১০: ০১ অপরাহ্ণ | সংবাদটি 840 বার পঠিত

বিশ্বনাথের প্রথম ব্যাক্তি হিসেবে মোহাম্মদ মহিউস সুন্নাহ জাতিসংঘে লিগ্যাল কনসালটেন্ট হিসেবে কর্মরত আছেন
মোহাম্মদ মহিউস সুন্নাহই বিশ্বনাথের প্রথম ব্যাক্তি যিনি জাতিসংঘে অধীনে হাইকমিশনার ফর লিগ্যাল কনসালটেন্ট হিসেবে কর্মরত আছেন ।  তিনি ১৯৫৫ সালে ২৯শে জানুয়ারী সিলেট শহরে জন্মগ্রহন করেন।তার পিতার নাম ওহিদ-উন –নূর  ও মাতার নাম আলী রওশন ।মোহাম্মদ মহিউস সুন্ন্াহ এর পৈত্রিক নিবাস বিশ্বনাথ উপজেলার বিশ্বনাথ ইউনিয়নের আতাপুর গ্রামে ।তার পিতা ওহিদ-উন –নূর  ছিলেন কাস্টমস এন্ড ভ্যালুয়েশনস এর সাবেক জয়েন্ট কালেক্টর এবং দাদা মরহুম মাওলানা ইব্রাহীম আলী ছিলেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ,সিলেট গভ:হাই স্কুল এর প্রাক্তন শিক্ষক এবং পরবর্তিতে সিলেট উইমেন্স কলেজের সাবেক অধ্যাপক । আর কনিষ্ট চাচা মুকতাবিস উন নূর ছিলেন  সিলেট প্রেসক্লাবের ৬ বারের সভাপতি ।
মোহাম্মদ মহিউস ্ সুন্নাহ চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রসায়ন শাস্ত্রে কৃতিত্বের সাথে অনার্স ডিগ্রী অর্জন করেন । এরপর যুক্তরাষ্ট্রের মায়ামী ্ইউনিভার্সিটি থেকে  ল’ তে মাস্টার্স ডিগ্রী এবং নিউইয়র্ক থেকে এটর্নী এট.ল ডিগ্রী  অর্জন করেন। মোহাম্মদ মহিউস সুন্নাহ দেশে বিদেশে অনেক সম্মানজনক ও মর্যাদাপ পর্ণ  পদে চাকরী করেন এবং বর্তমানে জাতিসংঘের অধীনে হাইকমিশনার ফর রিফিউজিস ইন থার্ড ওয়ার্ল্ড (UNCHR)এর লিগ্যাল কনসালটেন্ট হিসেবে হংকং এ কর্মরত আছেন ।
ছয় ভাই ও দুই বোনের মধ্যে মহিউস সুন্নাহর অবস্থান দ্বিতীয়। তার বড় ভাই মিছবাহ উন  নূর সিলেটের রিজিওনাল এগ্রিকালচার অফিসার ও পরবর্তিতে সিলেট এগ্রিকালচারাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউটের ভাইস প্রিন্সিপাল ছিলেন ,৩য় ভাই ড: মোহাম্মদ নাজমুস সাকিব ১৯৮১ সালে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সিভিল ইনঞ্জিনিয়ারিং এ প্রথম শ্রেণীতে প্রথম স্থান অর্জন করে কিছুদিন উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে লেকচারার হিসেবে চাকরি করার পর স্কলারশিপ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে গিয়ে উচ্চ শিক্ষা গ্রহন শেষে ক্যান্টাকী ইউনিভার্সিটিতে এসোসিয়েট প্রফেসর হিসেবে কর্মরত ,৪র্থ ভাই এনায়েত হোসেন সাকী চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পাবলিক এডমিনিস্ট্রেশন এ অনার্স ও মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন করার পর বর্তমানে আমেরিকা প্রবাসী ,৫ম ভাই বেলায়েত হোসেন চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একাউন্টিং এ অনার্স সহ মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন করে কিছুদিন বাটা সু কোম্পানীর ম্যানেজার পদে অধিষ্টিত থাকার পর বর্তমানে আমেরিকা প্রবাসী ,সর্বকনিষ্ট ভাই ড:সদাকাত হোসেন জুনায়েদ শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনিতিতে প্রথম শ্রেণীতে প্রথম স্থান অধিকার করে মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন করার পর উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারি অধ্যাপক ছিলেন এবং পরে কানাডাতে গিয়ে পি এইচ. ডি করে সেখানকার উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত আছেন । বোনদের মধ্যে একজন মিসেস খালেদা হক চট্রগ্রাম আগ্রাবাদ কলেজের বাংলা সাহিত্যের সহকারি অধ্যাপক এবং অপরজন আমেরিকা প্রবাসী ।
মোহাম্মদ মহিউস  সুন্নাহ ১৯৯০ সালে চট্রগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের চীফ মেডিকেল অফিসার ডা: কামাল এ খান এর  কন্যা কিশওয়ার খান এর সাথে বিবাহ বন্দনে আবদ্দ হন । টেলিভিশনের একজন জনপ্রিয় রবিন্দ্র সংগীত শিল্পী কিশোওয়ার কামাল খান  চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে অনার্স ও মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন করার পর বর্তমানে মানিকগঞ্জ সরকারী  গোবিন্দ কলেজে ইংরেজি সাহিত্যের অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত আছেন।

error: Content is protected !!